অনলাইন ব্যবসা এবং ই-কমার্স

0

অনলাইন ব্যবসা এবং ই-কমার্স কি?

অনলাইন ব্যবসা এবং ই-কমার্স পরস্পর সম্পর্কযুক্ত হলেও একই জিনিস নয়।অনলাইন ব্যবসা হল এমন এক ধরনের ব্যবসা যেখানে ইন্টারনেটকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন ধরনের জিনিস ক্রয় বিক্রয় করা হয়।অপরদিকে ই-কমার্স হল ইন্টারনেটের মাধ্যমে সুরক্ষিত ভাবে অর্থের লেনদেন করা।

অনলাইন ব্যবসা করার জন্য কি কি করনীয়?

  1. অনলাইন ব্যবসা করার জন্য সর্বপ্রথম ব্যবসায়িক মডেল নির্বাচন করা একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।এক্ষেত্রে প্রধানত দুই ধরনের মডেল দেখতে পাওয়া যায় যথা –
    • সিঙ্গেল ভেন্ডার মার্কেটপ্লেস – যদি ব্যবসায় ব্যবহৃত অর্থের পরিমাণ কম হয় বা কোন একই ধরনের প্রোডাক্ট বিক্রয় করা হয় সে ক্ষেত্রে এই মডেলটি অনুসারে ব্যবসা করা যেতে পারে।এক্ষেত্রে সম্পূর্ণ ব্যবসাটির নিয়ন্ত্রণ নিজের অধীনে থাকে এবং কেবলমাত্র নিজস্ব প্রোডাক্ট বিক্রি করার দরুন এতে লভ্যাংশের পরিমাণ নিজের ইচ্ছা অনুসারে নির্ধারণ করা যায়।কিন্তু এক্ষেত্রে ব্যাবসায়ী যদি নিজে ব্যবসায় ভালো পারফরম্যান্স না করতে পারে তাহলে তার ব্যবসা বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
    • মাল্টি ভেন্ডার ই-কমার্স মার্কেটপ্লেস – ব্যবসায় যদি প্রচুর পরিমাণে অর্থের বিনিয়োগ করা সম্ভব হয় এবং বিভিন্ন ধরনের প্রোডাক্ট একাধিক বিক্রেতা বা সংস্থার থেকে ক্রয় করে ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করতে হয় সে ক্ষেত্রে এই ধরনের ওয়েবসাইট মডেলের অনুসরণ করা উচিত।যেহেতু এই ধরনের ব্যবসার ক্ষেত্রে একই জায়গায় বিভিন্ন ধরনের এবং বিভিন্ন বৈচিত্রের জিনিস পাওয়া যায় তাই এই ধরনের ব্যবসা ক্রেতাদের বেশি আকৃষ্ট করে।এই ধরনের ব্যবসা আরেকটি সুবিধা হল যে ব্যবসার সাথে যুক্ত কোন বিক্রেতা যদি নির্দিষ্ট জিনিসটির যোগান দিতে না পারেন তাহলেও আরেকজন বিক্রেতার কাছ থেকে সেই জিনিসটি যোগান পাওয়া যেতে পারে ফলে ক্রেতাকে কখনোই হতাশ হয়ে ফিরতে হয় না ফলে ব্যবসা চলতে থাকে।
  2. ব্যবসায়িক মডেল নির্ধারণের পর কোম্পানির একটি আদর্শ নাম নির্ধারণ করতে হয়। এক্ষেত্রে মাথায় রাখতে হয় যে নামটি যেন ছোট হয় যাতে সকলের সহজেই নামটি মনে থাকে, আপনি কি ধরনের প্রোডাক্ট এর ব্যবসা করছেন সেটা যেন নামটি দ্বারা প্রতিফলিত হয় আর আপনি যদি ব্যবসাটি আন্তর্জাতিক বাজারে করতে চান তাহলে এটিও খেয়াল রাখতে হবে যে অন্য ভাষায় নামটির যেন কোন ভুলভাল মানে না থাকে।এছাড়া ব্যবসার সাথে সম্পর্কযুক্ত একটি স্বতন্ত্র লোগো আপনাকে নির্বাচন করতে হবে।
  3. আপনি কোম্পানিটি স্বতন্ত্রভাবে চালাবেন না কারো সাথে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে চালাবেন তার উপর নির্ভর করে কোম্পানির টাইপ নির্ধারণ করতে হয়।এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ কারণ যদি কারো সাথে অংশীদারত্ব রেখে কোম্পানি চালাতে হয় তাহলে সর্বপ্রথমে এমপ্লয়ার আইডেন্টিফিকেশন নম্বর বা EIN নিতে হয়।অপরদিকে স্বতন্ত্র কোম্পানির ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশনের সময় প্রাপ্ত সোশাল সিকিউরিটি নম্বরকেই ব্যবহার করা যায় আলাদা করে কোনো এমপ্লয়ার আইডেন্টিফিকেশন নম্বর নেওয়ার দরকার পড়ে না।
  4. এরপর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হল কোম্পানির রেজিস্ট্রেশন করানো।এর জন্য মিনিস্ট্রি অফ কর্পোরেশন অ্যাফেয়ার্সের ওয়েবসাইটে গিয়ে ফর্ম ফিলাপ এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট আপলোড করার মাধ্যমে ডিরেক্টরস আইডেন্টিফিকেশন নম্বর বা DIN জেনারেট করতে হয়।এরপর রেজিস্টার অফ কোম্পানিস বা ROC তে গিয়ে নিজের কোম্পানীর নামের উপলব্ধতা যাচাই করে নিতে হবে।এরপরে আরো অনেক ছোটখাট এপ্লাই করতে করতে মোটামুটি ছয় মাসের মত সময় লেগে যায়।
  5. পরবর্তী ধাপে কোম্পানির নামে একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়।যদি কোম্পানিটি স্বতন্ত্র ভাবে পরিচালিত হয় সেক্ষেত্রে ব্যাংকে একাউন্ট খোলার জন্য প্রথমে GST জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।
  6. এরপর ব্যবসার সাথে সম্পর্কযুক্ত একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট বানাতে হবে যেটিকে আপনি নিজেও অপারেট করতে পারেন বা কোন পেশাদার ব্যক্তিকে দিয়েও অপারেট করাতে পারেন।কিন্তু ব্যবসাটিকে সুষ্ঠুভাবে চালানোর জন্য সর্বদা নজরে রাখতে হবে যে প্রতিদিন যে সমস্ত প্রোডাক্টগুলি ওয়েবসাইটে আপলোড করা হচ্ছে তার সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য পরিষ্কার ভাবে দেওয়া থাকে, প্রোডাক্টের ছবিও যেন পরিষ্কার হয় এবং নিয়মিত বিভিন্ন অফার সম্পর্কে ওয়েবসাইটে বিস্তারিত তথ্য দেওয়া থাকে।
  7. এর পরবর্তী ধাপে আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য পেমেন্ট গেটওয় যথা Paypal ইত্যাদি সেট করতে হবে এবং ক্রেডিট-কার্ড ডেবিট-কার্ড নেট-ব্যাঙ্কিং ও ক্যাশ-ট্রান্সজেকশনের মাধ্যমে যাতে পেমেন্ট করা যায় তার ব্যবস্থা করতে হবে।পেমেন্ট গেটওয় চালু করার জন্য ব্যবসা সম্পর্কিত কিছু গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট সাবমিট করতে হবে।
  8. এর পরবর্তী ধাপে আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য পেমেন্ট গেটওয় যথা Paypal ইত্যাদি সেট করতে হবে এবং ক্রেডিট-কার্ড ডেবিট-কার্ড নেট-ব্যাঙ্কিং ও ক্যাশ-ট্রান্সজেকশনের মাধ্যমে যাতে পেমেন্ট করা যায় তার ব্যবস্থা করতে হবে।পেমেন্ট গেটওয় চালু করার জন্য ব্যবসা সম্পর্কিত কিছু গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট সাবমিট করতে হবে।
  9. অনলাইন ব্যবসা এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ হলো নিজের কোম্পানি বা ওয়েবসাইটের প্রতি জনগণকে আকৃষ্ট করা।এর জন্য কতগুলি পদ্ধতির অবলম্বন করা যেতে পারে যেমন –
    • যদি SEO বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের সাহায্যে আপনি আপনার ই-কমার্স ওয়েবসাইটকে সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম সারির দিকে নিয়ে আসতে সক্ষম হন তাহলে আপনার ওয়েবসাইটে জনগণের আসা-যাওয়া বেড়ে যাবে যা আপনার ব্যবসাকে দ্রুত উন্নতির পথে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।
    • নিজের অনলাইন ব্যবসা কে সার্চ ইঞ্জিনের শুরুর দিকে নিয়ে আসার জন্য নিজের ওয়েবসাইটে আদর্শ এবং উপযুক্ত কীওয়ার্ডের এর ব্যবহার করতে হবে।
    • বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে যথা ফেসবুক,  ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদিতে নিজের অনলাইন ব্যবসার বিজ্ঞাপন দিতে হবে।

অনলাইন ব্যবসার সুবিধা –

  1. এই ধরনের ওয়েবসাইট এর সাহায্যে কোন ব্যক্তি নিজস্ব প্রোডাক্ট কেবলমাত্র একটি নির্দিষ্ট সীমাবদ্ধ ভৌগোলিক অঞ্চলের মধ্যেই নয় বিশ্বের যেকোন প্রান্তে বিক্রি করতে সক্ষম হন।
  2. এটি ইন্টারনেটের দুনিয়ায় সব সময় উপলব্ধ থাকার কারণে কাজের সময়ের বাইরেও এমনকি ছুটির দিনেও ব্যবসা করা সম্ভব হয়।
  3. কাস্টমারদের কাছেও এই ধরনের ওয়েবসাইট খুব জনপ্রিয় হয় কারণ তারা নিজেদের স্বচ্ছন্দ পরিবেশে থেকেও মোবাইল, ট্যাবলেট ইত্যাদি ডিভাইসের সাহায্যে প্রোডাক্ট সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য জানতে পারেন, তাদের কাছে একটি প্রোডাক্টের অসংখ্য ভ্যারাইটি উপলব্ধ থাকে যার থেকে তারা নিজেদের পছন্দের প্রোডাক্টটি বেছে নিতে পারেন এবং যে কোন সময় প্রোডাক্টটি ক্রয় করতে পারেন।

ই-কমার্স পদ্ধতি ব্যবহারের সুবিধা –

ই-কমার্স একটি পদ্ধতি যেটি ই-কমার্স ওয়েবসাইটের একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য যেক্ষেত্রে SSL ইত্যাদি প্রোটোকলের সাহায্য নিয়ে অত্যন্ত নিরাপদে অনলাইনে অর্থের লেনদেন করা যায়।

Softweb Development Technologies এর সদস্যরা একদিকে যেমন আপনার ব্যবসার জন্য উপযুক্ত ই-কমার্স ওয়েবসাইট বানিয়ে দেয় তেমনি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের সাহায্যে ও কিওয়ার্ড রিসার্চের মাধ্যমে আপনার ব্যবসাকে দাঁড় করাতে এবং উন্নতি করতে সাহায্য করে থাকে।

বর্তমান শিক্ষাব্যবস্থার উপর প্রযুক্তির প্রভাব

আরো পড়ুন

https://www.facebook.com/srijoni.co.in

অনলাইন ব্যবসা এবং ই-কমার্স
What’s your Reaction?
+1
2
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

About Post Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *