বিজনেস ওয়েবসাইটের সুবিধা

0

বিজনেস ওয়েবসাইটের সুবিধা:

ওয়েবসাইট কি?

ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত এবং WWW বা ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবে প্রদর্শিত এমন এক গঠনগত দৃশ্যমান অংশ যার সাহায্যে বিভিন্ন কোম্পানি বা সংস্থা নিজেদের যাবতীয় তথ্য প্রদর্শন করে থাকে।

বিজনেস ওয়েবসাইট কি?

যে ধরণের ওয়েবসাইটের সাহায্যে কোনো ব্যাবসায়ী বা ব্যাবসায়ীক সংস্থা অনলাইনে নিজেদের প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন করে থাকেন বা অনলাইনের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রোডাক্টের ক্রয় বিক্রয় করে থাকেন সেই সমস্ত ওয়েবসাইটকে বিজনেস ওয়েবসাইট বলে।

সাধারণ ওয়েবসাইটের সাথে বিজনেস ওয়েবসাইটের পার্থক্য –

সাধারণ ওয়েবসাইটের সাহায্যে সাধারণত তথ্যের প্রচার করা হয়। কিন্তু বিজনেস ওয়েবসাইটের সাহায্যে ব্যবসা সম্বন্ধিত প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন করা হয় বা অনলাইনে বিভিন্ন জিনিষের ক্রয় বিক্রয় করা হয়। সাধারণ ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে SSL প্রোটোকল ব্যাবহারের প্রয়োজন হয় না। কিন্তু বিজনেস ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে SSL প্রভৃতি সিকিউরিটি প্রটোকলের ব্যাবহার একান্ত প্রয়োজন কারণ বিজনেস ওয়েবসাইটের একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট হলো অনলাইনের মাধ্যমে অর্থের আদান প্রদান করা।

বিজনেস ওয়েবসাইট কিভাবে প্রস্তুত করা হয়?

সর্বপ্রথম কোনো হোস্টিং কোম্পানির সাহায্যে ইন্টারনেটের দুনিয়ার কিছু পরিমাণে ভার্চুয়াল জায়গা বা সার্ভার কিনতে হয়। সার্ভার সাধারণত বিশালাকৃতির জায়গা হয় এবং একটা গোটা সার্ভার কিনতে প্রচুর মূল্য ব্যয় করতে হয়। যা বিভিন্ন বড়ো বড়ো ব্যাসায়িক সংগঠনের কাছে কোনো ব্যাপারই নয়।

এরপর ডোমেন বা ইন্টারনেটের দুনিয়ায় একটি নিজস্ব ঠিকানা ক্রয় করতে হয় এবং বিশেষ পদ্ধতির সাহায্যে ডোমেইন এবং হোস্টিং কে সংযুক্ত করতে হয়। এই প্রক্রিয়াটি সাধারনত 24 থেকে 48 ঘন্টার মধ্যে সম্পন্ন হয়ে যায়। ডোমেন এবং হোস্টিং এর সাহায্যেই  কোন ওয়েবসাইটকে ইন্টারনেটের দুনিয়ায় পাবলিশ করা হয়ে থাকে।

এরপর HTML, CSS, JavaScript, PHP, MYSQL প্রভৃতি এবং আরো অন্যান্য ওয়েব প্রযুক্তির ব্যবহার করে একটি বিজনেস ওয়েবসাইট প্রস্তুত এবং কার্যক্রম করা হয়ে থাকে।

বিজনেস ওয়েবসাইটের প্রকারভেদ –

  1. ই-কমার্স ওয়েবসাইট – এই ধরনের ওয়েবসাইটের সাহায্যে অনলাইনে বিভিন্ন প্রোডাক্ট বিক্রি করা হয়।
  2. ব্র্যান্ডিং ওয়েবসাইট – এই সমস্ত ওয়েবসাইটের সাহায্যে কোনো বিপননি সংস্থা কেবলমাত্র নিজেদের তৈরি করা বিভিন্ন প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপনি প্রচার করে থাকেন।
  3. লিড জেনারেশন ওয়েবসাইট – এই ধরণের ওয়েবসাইটের সাহায্যে গ্ৰাহকরা যেমন বিপননি সংস্থার যাবতীয় তথ্য পেয়ে থাকেন, তেমনি ফর্ম পূরণ, প্রশ্ন উত্তর ইত্যাদি পদ্ধতির সাহায্যে বিপননি সংস্থাও গ্রাহকদের পছন্দ অপছন্দ ইত্যাদি সম্পর্কে জানতে পারেন।
  4. পাবলিশিং ওয়েবসাইট – এই ধরণের ওয়েবসাইট কোনো বিপননি সংস্থার প্রোডাক্টের উপর কোনো ব্লগ অথবা বিজ্ঞাপনের পাব্লিশিং করে থাকে।

বিজনেস ওয়েবসাইটের সুবিধা –

  • আপনি যে ধরণেরই ব্যবসা করুন না কেন যদি আপনার বিজনেস ওয়েবসাইট থাকে তাহলে আপনার ইন্টারনেটের দুনিয়ায় একটা অস্তিত্ব থাকে। যা একদিকে যেমন আপনাকে অনলাইনে আপনার প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন করতে সাহায্য করে তেমনি আপনার গ্রাহকদের সাথে সরাসরি কথা বার্তা বলার মাধ্যমে তাদের পছন্দ অপছন্দ, চাহিদা ইত্যাদি জানতে ও সাহায্য করে যা আপনাকে ব্যাবসায়িক নীতি নির্ধারণে ও আপনার ব্যাবসার উন্নতি ঘটাতে সাহায্য করে। 
  • বিজনেস ওয়েবসাইট আপনাকে কেবলমাত্র নির্দিষ্ট ভৌগোলিক সীমানার মধ্যেই নিজের ব্যাবসাকে সীমাবদ্ধ না রেখে সারা বিশ্বের দরবারে আপনার ব্যাবসার বিস্তারে সাহায্য করে।
  • আপনি যখন কোনো সোশ্যাল মিডিয়ায় বা অন্য কোনো ওয়েবসাইটে নিজের ব্যাবসায়িক প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন দেন তখন বহু অচেনা বাক্তিও সেটি দেখতে পান ও তার যদি কিছু কেনার থাকে, হতেই পারে তিনি আপনার থেকেই সেটি কিনলেন অর্থাৎ বিজনেস ওয়েবসাইট থাকলে তা আপনাকে নতুন গ্ৰাহক পেতেও সাহায্য করে।
  • বিজনেস ওয়েবসাইট শুধু নতুন গ্রাহক পেতেই সাহায্য করে না আপনার পুরোনো গ্রাহকদের সাথেও সু-সম্পর্ক বজায় রাখতে সাহায্য করে। আপনি আপনার ওয়েবসাইটের সাহায্যে আপনার পুরোনো গ্রাহকদের সাথে নিয়মিত কথাবার্তা বলে তাদের নিত্যনতুন চাহিদা জানতে পারেন এবং যা আপনাকে নিজের ব্যাবসায়িক নীতি নির্ধারণে, বিভিন্ন অফারের নির্ধারণে সাহায্য করে যা আপনার নিয়মিত গ্রাহকে সর্বদা সন্তুষ্ট রাখতে সাহায্য করে।
  • খুব কম মূল্যের বিনিময়ে বিজনেস ওয়েবসাইটের সাহায্যে ব্যাবসার অনলাইনে প্রচার করা সম্ভব। আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেসের সাহায্যে আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করান তো খুব কম মূল্যের বিনিময়ে একটি বিজনেস ওয়েবসাইট পেয়ে যেতে পারেন ও তার সাহায্যে নিজের ব্যাবসার প্রচার ও উন্নতি করতে পারেন। আপনি যদি অফলাইনের মাধ্যমে আপনার ব্যাবসার প্রচার করতে যান তাহলে আপনাকে অনেক মূল্য ব্যায় করতে হবে।

Softweb Development Technologies এর সদস্যরা আপনার প্রয়োজন অনুসারে বিজনেস ওয়েবসাইট তৈরি করে দিতে সক্ষম।এছাড়াও এখানকার সদ্যসরা বিজনেস ওয়েবসাইটের বা সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে কি ভাবে নিজের ব্যাবসার প্রসার ও উন্নতি ঘটাবেন সে ব্যাপারেও আপনাকে উপযুক্ত পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

স্টক ইমেজ

বিজনেস ওয়েবসাইটের  সুবিধা
What’s your Reaction?
+1
1
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

About Post Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *